ফেসবুকে আগ্রহ হারাচ্ছে তরুণরা?

সাম্প্রতিক এক গবেষণার ফল বলছে, যুক্তরাজ্যের অনেক তরুণ এখন ফেসবুক ছেড়ে দিচ্ছেন। কারণ? অনেকের মা-বাবাই এখন ফেসবুক ব্যবহার শিখে গেছেন। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ বিষয়ক গবেষকেরা জানিয়েছেন, তরুণদের মধ্যে ফেসবুক ব্যবহারের আগ্রহ কমে যাচ্ছে। ফেসবুক ফেলে সামাজিক যোগাযোগের ক্ষেত্রে অন্যান্য সহজতর মাধ্যমগুলো এবং মেসেজিং অ্যাপ্লিকেশনের দিকে ঝুঁকছেন তাঁরা।
যুক্তরাজ্যে পরিচালিত এক গবেষণায় গবেষকেরা দেখেছেন যে, স্ন্যাপচ্যাট, হোয়াটসঅ্যাপ ও টুইটারের দিকে ঝুঁকে পড়ার কারণে ফেসবুকে আগ্রহ হারাচ্ছে তরুণরা। এ খবরে এ তথ্য জানিয়েছে যুক্তরাজ্যের দ্য ইনডিপেনডেন্ট পত্রিকা।
গবেষকেরা গ্লোবাল সোশাল মিডিয়া ইমপ্যাক্ট স্টাডি নামে সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইটের ব্যবহার নিয়ে একটি গবেষণা করেছেন।
যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডনের গবেষক ড্যানিয়েল মিলার এ প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, এক সময় সন্তানদের ফেসবুকে যোগদানের ব্যাপারে অভিভাবককে উত্কণ্ঠায় থাকতে দেখা যেত এখন ঘটছে ঠিক এর উল্টো। অভিভাবকের নজরদারির ভয়ে তরুণরা ফেসবুক ছেড়ে দিচ্ছেন।
গবেষক মিলার জানিয়েছেন, বর্তমানে অধিকাংশ অভিভাবক ফেসবুকের ব্যবহার শিখে গেছেন এবং তাঁরা এই সাইট থেকে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করতে পারছেন। অভিভাবকদের ফেসবুক ব্যবহারের হার যেমন বাড়ছে তখনই তরুণদের আগ্রহ কমছে এতে। তরুণদের কাছে ফেসবুক এখন মরুভূমিতুল্য।
এই গবেষণায় অংশ নেওয়া যুক্তরাজ্যের তরুণদের অধিকাংশই স্বীকার করেছেন যে, প্রযুক্তি সুবিধার হিসেবে ফেসবুক এগিয়ে থাকলেও ফেসবুকে নতুন কিছু করার সুযোগ নেই বলে তরুণরা এটা ছেড়ে যাচ্ছেন। আবার অনেকে মা-বাবার নজরদারি থেকে বাঁচতেও ফেসবুক ছেড়ে দিচ্ছেন।